বরই চাষে হোসেনের বাজিমাত, প্রথমবারই দুই লাখ টাকা লাভ !

তিন বছর আগে দেশের উত্তরাঞ্চলে ঘুরতে যান মো. হোসেন। সেখানের বরই চাষ দেখে আকৃষ্ট হন তিনি। এরপর ভোলার লালমোহনের রমাগঞ্জ ইউপির পূর্ব চরউমেদ গ্রামে ফিরেই ২০২০ সালে ১০০ শতাংশ জমিতে নিজেই তৈরি করেন বরইয়ের বাগান।

বছরখানেকের মাথায়ই হোসেনের ওই বরই বাগানে আসতে শুরু করে ফল। প্রথমবারেই ব্যয় বাদে বরই বিক্রি করে অন্তত দুই লাখ টাকা লাভবান হন তিনি। এরপর নিজের বরই বাগান নিয়ে পুরোদমে কাজ শুরু করেন হোসেন।

এবছরও তার বরইয়ের বাম্পার ফলন হয়েছে। তার আশা এবছরও খরচ বাদ দিয়ে বাগান থেকে প্রায় তিন লাখ টাকার বরই বিক্রি করতে পারবেন তিনি।

অন্যদেরকেও আগ্রহী হয়ে সমাজে বিষমুক্ত ফল পরিবেশনে সহযোগী হওয়ার আহবান জানান লালমোহনের বরই চাষে সফল হওয়া যুবক মো. হোসেন।

উপজেলা কৃষি অফিস থেকে বরই চাষি হোসেনকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও সামগ্রী প্রদান করা হয়েছে জানিয়ে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মেহেদি হাসান বলেন, আরো কেউ আগ্রহী হলেও লালমোহন উপজেলা কৃষি অফিস সব সময় তাদের পাশে থাকবে।

হোসেনের বাগানে রয়েছে, বল সুন্দরী ও আপেল কুল জাতের বরই। যা বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকা থেকে দেড়শত টাকা কেজি দরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *