আমি কার কী ক্ষ’তি করেছিলাম: তসলিমা নাসরিন

বাংলাদেশ থেকে নির্বাসিত হয়ে ভারতে থাকা লেখিকা তসলিমা নাসরিন হাসপাতালের ভুল চিকিৎসার শিকার হয়েছেন। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, আমি কার কী ক্ষতি করেছিলাম? রোববার (২২ জানুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন লেখিকা।

তসলিমা নাসরিন লেখেন, মৃ’ত্যুই জীবনের সমাপ্তি। কিন্তু মৃ’ত্যু আমার জীবনে কোনও সমাপ্তি আনেনি শনিবার দুপুরবেলায়। শনিবার দুপুরবেলায় আচমকা কিছু লোক অন্ধকার থেকে উঠে এসে আমার চোখ বাঁধলো প্রথম, তারপর হাত, তারপর দুটো পা। তারপর আরও গভীর অন্ধকারে নিয়ে গিয়ে আমার খুলি খুলে মস্তিষ্ক বের করে নিল, বুক খুলে হৃদপিণ্ড।

আমি এখনও অন্ধকারে পড়ে আছি, তবে আমি শ্বাস নিচ্ছি এখন, কারণ ফুসফুস দুটো এখনও বেঁচে আছে। এখনও হাত দুটো শূন্যে মেলে দিতে পারছি, এখনও চিৎকার করতে পারছি, বলতে পারছি- কার কী ক্ষতি করেছিলাম?

বাংলাদেশ থেকে নির্বাসিত হয়ে ভারতে থাকা লেখিকা তসলিমা নাসরিন হাসপাতালের ভুল চিকিৎসার শিকার হয়েছেন। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, আমি কার কী ক্ষতি করেছিলাম? রোববার (২২ জানুয়ারি) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন লেখিকা।

তসলিমা নাসরিন লেখেন, মৃ’ত্যুই জীবনের সমাপ্তি। কিন্তু মৃত্যু আমার জীবনে কোনও সমাপ্তি আনেনি শনিবার দুপুরবেলায়। শনিবার দুপুরবেলায় আচমকা কিছু লোক অন্ধকার থেকে উঠে এসে আমার চোখ বাঁধলো প্রথম, তারপর হাত, তারপর দুটো পা। তারপর আরও গভীর অন্ধকারে নিয়ে গিয়ে আমার খুলি খুলে মস্তিষ্ক বের করে নিল, বুক খুলে হৃদপিণ্ড।

আমি এখনও অন্ধকারে পড়ে আছি, তবে আমি শ্বাস নিচ্ছি এখন, কারণ ফুসফুস দুটো এখনও বেঁচে আছে। এখনও হাত দুটো শূন্যে মেলে দিতে পারছি, এখনও চিৎকার করতে পারছি, বলতে পারছি- কার কী ক্ষতি করেছিলাম?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *