প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দিলেন গৃহহীন !

এবার বগুড়ায় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের ঘর বেচে দিয়েছেন এক গৃহহীন। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে তাকে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে বেচে দেওয়া বাড়ির দলিলটি। গত শুক্রবার ২০ জানুয়ারি দুপুরে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফিরোজা পারভীন অভিযান চালিয়ে এই সাজা ও দলিল উদ্ধার করেন। সাজা পাওয়া ব্যক্তির নাম জামরুল শেখ। তিনি বগুড়া সদরের চার নম্বর এরুলিয়া ইউনিয়নের কদমতলী এলাকার বাসিন্দা।

এর আগে গত বছরের ১৬ নভেম্বর একই আশ্রায়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা মো. ইদ্রিস আলী আকন্দের কাছে ৭০ হাজার টাকার বিনিময়ে নিজের বরাদ্দ পাওয়া ঘরটি বিক্রি করেন জামরুল। ১০০ টাকা মূল্যের একটি স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা লিখে এবং বিক্রি করা উপহারের ঘরের দলিল ইদ্রিস আলীকে বুঝিয়ে দেন তিনি।

এ বিষয়ে ইউএনও ফিরোজা পারভীন জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য এরুলিয়া ইউনিয়নের কদমতলীতে আশ্রয়ণ প্রকল্প নির্মাণ করা হয়েছে। ওই প্রকল্পের ১২ নম্বর বাড়ি জামরুল গৃহহীন হওয়ায় বরাদ্দ পান। তবে তিনি প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে ওই প্রকল্পের আরেক বাসিন্দা ইদ্রিস আকন্দের বরাদ্দ পাওয়া ঘরটি বিক্রি করে দেন।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়ার পর ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জামরুলকে এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি সঙ্গে কোনো চক্র বা অন্য কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি এই ঘরগুলো প্রাপ্য মানুষদের হাতে তুলে দিতে উপজেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরও জানান, মুজিব শতবর্ষে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের পূর্ণবাসনের জন্য কৃষি খাস জমি বন্দোবস্তের কবুলিয়ত নামার ১৩ এবং ১৪তম ধারায় বলা আছে- আমরা আমাদের জমির সমস্ত বা কোন অংশ বিক্রি, দান বা অন্য কোনো প্রকার হস্তান্তর করতে পারবো না। তবে জেলা প্রশাসকের অনুমতি নিয়ে চাষাবাদের প্রয়োজনে এই জমি কোনো ব্যাংক বা সমবায় সমিতির অথবা সরকারের নিকট বন্ধক রাখতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *