ইংল্যান্ড সিরিজে মাশরাফিকে দলে চান আশরাফুল !

চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) বল হাতে দুর্দান্ত ছন্দে রয়েছেন সিলেট স্ট্রাইকার্স দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত ৬ ম্যাচ খেলে ৯ উইকেট নিয়েছেন তিনি। ১১ উইকেট নেয়া ওয়াহাব রিয়াজের পরই সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের তালিকায় মাশরাফি দ্বিতীয়। এমন বোলিং প্রদর্শনীতে জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল বলছেন, জাতীয় দলে অনায়াসে জায়গা পেতে পারেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

আজ মিরপুরে সাংবাদিকদের সাথে আলাপচারিতায় আশরাফুল বলেন, ‘যারা আসলে ট্যালেন্টেড বয়সটা কোনো ব্যাপার না। ওটা একটা নাম্বার। যেহেতু সে ন্যাচারাল ট্যালেন্ট ছিল, সে যে ৫০ বছরেও যেয়েও তার বেস্ট পারফরম্যান্সটা করতে পারবে এটা আমি বিশ্বাস করি।’ গত ২০১৭ সালের এপ্রিলে কলম্বোতে শ্রীলঙ্কার সাথে শেষ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

সিরিজের প্রথম ম্যাচে ধারাভাষ্যকার ডিন জোন্স জানতে চান মাশরাফির কাছে, অবসর নিয়ে গুঞ্জন সত্যি কি না। জবাবে মাশরাফির উত্তর ছিলো, এটাই তার শেষ টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এরপর টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে মাশরাফির অবসর নিয়ে কম আলোচনা ও বিতর্ক হয়নি দেশের ক্রিকেটে। মাশরাফির অবসরের পেছনে বিসিবির চাপ ও কোচ হাথুরুসিংহকে দায়ী করে দেশের ক্রিকেট সমর্থকদের অনেকেই।

কিন্তু এই বয়সে জাতীয় দলের বাইরে থেকেও সফল মাশরাফি। বিপিএলে উজ্জ্বল পারফর্ম্যান্সে শুধু নিজে নয় দলকেও টেনে তুলেছেন ধারাবাহিকভাবে। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত ৬ ম্যাচ খেলে ৫টিতেই জয় পায় মাশরাফির সিলেট। সিলেটের এমন জয়ের পেছনের কারিগর ভাবা হচ্ছে মাশরাফিকেই। ক্রিকেটারদের সেরা পারফর্ম্যান্সটা তিনি তুলে এনেছেন অধিনায়কত্বের মুন্সিয়ানায়।

উড়তে থাকা মাশরাফিকে তাই ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড সিরিজে দেখতে চান মোহাম্মদ আশরাফুল। মাশরাফির সতীর্থ সাবেক এই ক্রিকেটারের ভাষ্য, ‘পারফর্ম্যান্সে তো অবশ্যই ন্যাশনাল টিমে আশা উচিত মাশরাফির। কারণ আপনি যদি ওভার অল দেখেন যে যারা ইয়াং ফার্স্ট বোলার আছেন তারাও তাদের ঠিক ইকোনেমি রেট বলেন উইকেট বলেন সবকিছু মাশরাফি টপ।

তিনি আরও বলেন, ‘কিন্তু এখন সে খেলবে কি না এটা হলো ইমপরট্যান্ট। মাশরাফি ন্যাশনাল টিমে খেলবে কি না এটা ইমপরট্যান্ট। কিন্তু পারফর্ম্যান্সে অবশ্যই যে ইংল্যান্ডের সাথে খেলা ইজিলি আছে।’ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৫৪ ম্যাচে মাশরাফির শিকার ৪২ উইকেট। ৮.০৫ ইকোনিমি রেট নিয়ে টি-টোয়েন্টিতে তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং আইরিশদের বিপক্ষে ১৯/৪।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *