সাহসী ট্রান্সপারেন্ট পোশাকে রাস্তায় ত্রিধা চৌধুরী, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

টলিউড ইন্ডাস্ট্রি বা বলিউড ইন্ডাস্ট্রি, এমনকি ভোজপুরি ইন্ডাস্ট্রিতে অভিনয় করে গোটা ভারতবর্ষের কাছে বেশ জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন ত্রিধা চৌধুরী। প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় অভিনীত কাকাবাবু সিরিজের “মিশর রহস্য” থেকে অভিনয় জগতে পা রেখেছিলেন এই অভিনেত্রী। তারপর তিনি জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছানোর হিন্দি ওয়েব সিরিজ “আশ্রম” এ ববিতা বৌদি চরিত্রে অভিনয় করে। ববি দেওলের সাথে ত্রিধার অন্তরঙ্গ ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত লক্ষ লক্ষ নেটিজেনের রাতের ঘুম উড়িয়েছে, এই বিষয়ে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই।

বাঙালি অভিনেত্রী ত্রিধা চৌধুরী বরাবর তার সাহসী মানসিকতার জন্য সোশ্যাল মিডিয়াতে সুপার ট্রেন্ডিং হয়ে ওঠেন। মাঝেমাঝেই অন্তরঙ্গ মুহূর্তের সিনে নিজেকে যেমন সঁপে দেন, তেমন কখনো আবার সোশ্যাল মিডিয়াতে ছোটখাটো পোশাক পরে বা সাহসী পোজে ছবি তুলে চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে আসেন তিনি।

আসলে পরিচালক প্রকাশ ঝা এর আশ্রম ওয়েব সিরিজে অভিনয় করার পর থেকে অভিনেত্রী ত্রিধার জনপ্রিয়তা উল্লেখ্যযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই আশ্রম ওয়েব সিরিজে ত্রিধা চৌধুরীর অভিনীত ববিতা চরিত্রটির বোল্ডনেস দেখে কার্যত চমকে গিয়েছিলেন অনেকেই।

এখন অভিনেত্রী সোশ্যাল মিডিয়াতে ছবি পোস্ট করলেই তা মুহূর্তের মধ্যে টক অফ দ্যা টাউন হয়ে ওঠে। আসলে অভিনেত্রী ফ্যানেরা ছবিতে রীতিমতো লাইক ও কমেন্ট এর বন্যা বয়ে দেন। তাই তো ছবি পোস্ট করলেই দাবানলের মতো তা ইন্টারনেটের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে যায়।

সম্প্রতি অভিনেত্রীর প্রোফাইল থেকে এমন একটি ভিডিও পোস্ট হয়েছে যেখানে তাকে দেখা যাচ্ছে শহরের রাস্তায় ট্রান্সপারেন্ট ড্রেস পরে ঘুরতে। কয়েকদিন আগে অভিনেত্রী ত্রিধা তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন যাতে তাকে ট্রান্সপারেন্ট পোশাক পরে রাস্তায় ঘুরতে দেখা গিয়েছে। এছাড়াও ভিডিওতে ত্রিধাকে এমন কিছু কাজ করতে দেখা যায়, যা তার ভক্তদের হুঁশ উড়িয়ে দিয়েছে।

ত্রিধা যে ভিডিওটি শেয়ার করেছেন তাতে তিনি একটি কালো স্ট্র্যাপি ড্রেস পরে আছেন। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল এই পোশাকের অনেক জায়গায় ট্রান্সপারেন্ট পোশাকের ঝলক রয়েছে। এই পোশাকে ত্রিধাকে বেশ সাহসী এবং গ্ল্যামারাস দেখাচ্ছে। তবে, এই প্রথম নয় এর আগেও বেশ কয়েকবার এই ধরনের পোশাক পরে সোশ্যাল মিডিয়ার নজরে এসেছিলেন অভিনেত্রী ত্রিধা চৌধুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *