পুরো ট্রেন ভাড়া করলেন এমপি মুন্না!

দীর্ঘ পাঁচ বছর পর রাজশাহীতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী ২৯ জানুয়ারি নগরীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর এই জনসভায় অংশ নিতে ১৫ বগির বিশেষ একটি ট্রেন ভাড়া করেছেন সিরাজগঞ্জ-২ (সদর ও কামারখন্দ) আসনের এমপি অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না।

আওয়ামী লীগের সূত্র জানিয়েছে, ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না ইতিমধ্যে ১৫ বগির একটি বিশেষ ট্রেন ভাড়া করেছেন। প্রতিটি বগিতে ১০৫টি করে আসন রয়েছে। তবে বিশেষ ব্যবস্থায় আসন সংখ্যার চেয়েও দিগুণ মানুষকে নিয়ে ট্রেনটি যাবে। সব মিলিয়ে অন্তত সাড়ে তিন থেকে চার হাজার নেতাকর্মী এই ট্রেনে যেতে পারবে। তবে সংখ্যা বেশি হলে প্রয়োজনে আরও কয়েকটি বগি ভাড়া নিয়েও বিশেষ এই ট্রেনে সংযুক্ত করা হতে পারে।

২৯ জানুয়ারি সকাল ৯টায় সিরাজগঞ্জ শহরের সিরাজগঞ্জ বাজার রেলওয়ে স্টেশন থেকে ট্রেনটি ছেড়ে যাবে। যাওয়ার পথে কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল রেলওয়ে স্টেশনে ১৫ মিনিট বিরতি দেবে। সেখানে ওই এলাকার নেতাকর্মীদের ট্রেনে ওঠার সুযোগ থাকবে। পরবর্তীতে বিরামহীনভাবে ট্রেনটি রাজশাহীর উদ্দেশে যাত্রা করবে। প্রধানমন্ত্রীর জনসভা শেষে দলীয় কর্মীদের নিয়ে একই ট্রেনে সিরাজগঞ্জে ফিরে আসবেন তিনি।

সিরাজগঞ্জ বাজার রেলওয়ে স্টেশনের ইনচার্জ মাসুদ রানা বলেন, সিরাজগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না আগামী ২৯ তারিখে রাজশাজী যাওয়ার জন্য একটি বিশেষ ট্রেন ভাড়া নিয়েছেন। ১৫ বগির সব আসনের ভাড়া দিয়েই ট্রেনটি নিচ্ছেন তিনি। ওইদিন সিল্কসিটি ট্রেনটি বন্ধ থাকবে। এ কারণে সিডিউলের কোনো সমস্যা হবে না।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সিরাজগঞ্জের নেতাকর্মীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনসভা সরাসরি শুনতে পায়নি। তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মাঝে নেত্রীকে কাছ থেকে দেখার কিংবা সরাসরি ভাষণ শোনার একটি আকাঙ্ক্ষা রয়েছে। তাদের এই আকাঙ্ক্ষা পূরণে আমি এই বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছি। যাতে চার-পাঁচ হাজার মানুষ রাজশাহীতে যাবে জনসভা শুনে আবার ওই ট্রেনেই ফিরে আসবে। এ ছাড়াও বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীর জন্য আপ্যায়নের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *