টাকা গুনতে না পারায় বিয়ে ভেঙে দিলেন কনে! !

বিয়েতে এক এক জায়গায় এক এক নিয়ম থাকে। তবে বিয়ের মাঝে মধ্যেই চলাকালীন ঘটে যায় নানা রকম ঘটনা। তেমনি ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদ জেলায়। বিয়ের আসর থেকে বাধ্য হয়েই খালি হাতে ফিরে যেতে হলো বরকে। কারণ কনে বিয়ে ভেঙে দিয়েছেন। কিন্তু কী এমন হলো যে, হুট করে বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত নিলেন কনে।

হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদ জেলায় একটি বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজর করা হয়। বিয়ের আসরে কনের পরিবারের সবার সন্দেহ হয় বর মানসিক ভারসাম্যহীন। বিষয়টি পরীক্ষা করার জন্য বরকে ১০ টাকার ৩০টি নোট গুনতে দেওয়া হয়। কিন্তু বর নোট গুনতে ব্যর্থ হন।

আর এ কারণেই বিয়ে বাতিল করে দেন কনে। এ নিয়ে শুরু হয় দুপক্ষের মধ্যে তুমুল বিতণ্ডা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে পুলিশ। তারা দুপক্ষকে নিয়ে সমস্যাটি মিটমাট করার চেষ্টা করেন। কিন্তু কোনোভাবে কনে বিয়ে করতে রাজি হননি। ফলে বাধ্য হয়েই বরপক্ষকে চলে যেতে হয়।

কনের ভাই জানান, তাদের একজন নিকটাত্মীয় বর ঠিক করেছিলেন। ওই আত্মীয়ের প্রতি বিশ্বাস থাকায় বিয়ের আগে তারা বরকে দেখেননি। কিন্তু বিয়ের অনুষ্ঠানে ছেলের আচরণ দেখে সন্দেহ হয় তাদের। পরে তাকে ৩০টি ১০ টাকার নোট গুনতে দেওয়া হয়। কিন্তু সে না পারায় তার বোন বিয়ে বাতিল করে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *