এক মুরগির দামই ২ লাখ টাকা! শুধু পায়ের ওজনই দেড় কেজি!

মুরগির দাম শুনেই চোখ কপালে ওঠার মতো অবস্থা। তবে চোখ কপালে ওঠার কিছু নেই। ঠিকই দাম শুনেছেন। অদ্ভুত এই মুরগির নাম ‘ডং তাও’। স্থানীয়ভাবে পরিচিত ড্রাগন চিকেন নামে।

এই মুগির বিশেষত্ব হলো পা। এর বাণিজ্যিক চাষ করা হয় ভিয়েতনামে। দেশটির উত্তরাঞ্চলের একটি গ্রামের নামকরণ করা হয়েছে মুরগিটির নামে। সেখানে সবচেয়ে বেশি ড্রাগন মুরগির ফার্ম রয়েছে।
মুরগি
পুরু লালচে আবরণে ঢাকা এই পা লম্বায় হতে পারে একটি ইটের সমান। এর থাবা মানুষের হাতের তালুর আকৃতির। মুরগিটির শুধু পায়ের ওজনই এক দেড় কেজি পর্যন্ত হয়, যা এর শরীরের মোট ওজনের এক-পঞ্চমাংশ।

এ ধরনের মুরগির ওজন ৫ থেকে ১০ কেজি পর্যন্ত হয়ে থাকে। সবচেয়ে বড় আকারেরগুলো বাজারে ২০০০ হাজার ডলারেও বিক্রি হয়, যার মূল্য বাংলাদেশি টাকায় দুই লাখেরও বেশি।

১৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে ড্রাগন মুরগি চাষ করছেন লে ভ্যান হিয়েন। তিনি বলেন, ‘এই মুরগিকে দিনের বেশ কিছুটা সময় খোলা পরিবেশে ছেড়ে রাখা হয়। এরা যত বেশি হাঁটে, তত বেশি পায়ের পেশি শক্তিশালী ও বড় হয়। আর মুরগিকে খাবার হিসেবে দেয়া হয় ভুট্টা ও চালের গুড়ো, যা এর মাংশের স্বাদ বহুগুণ বাড়িয়ে দেয়।’

চন্দ্র নববর্ষে ভিয়েতনামের অন্যতম জনপ্রিয় খাবার ‘টেট’ বানানোর প্রধান উপকরণ ড্রাগন মুরগি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *