অনশনের ৩৬ ঘণ্টা পর সেই তরুণীর বিয়ে!

টানা ৩৬ ঘন্টা অনশনের পর অবশেষে প্রেমিক মহিন মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়েছে অনশনকারী তরুণীর। গতকাল সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে গাইবান্ধার সাঘাটার উপজেলার কামালের পাড়া ইউনিয়নের শিমুলবাড়িয়া গ্রামে প্রেমিক জুটির বিয়ে হয়। আজ (মঙ্গলবার) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন কামালেরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সাহিনুর ইসলাম।

চেয়ারম্যান বলেন, ‘স্থানীয় রেজিস্ট্রার কাজী কামাল পাশা ও মৌলভী গোলাম রব্বানী এই বিয়ের কাজ সম্পাদন করেন। এ বিয়ের চার লাখ টাকা মোহরানার মধ্যে নগদ ৫০ হাজার টাকা পরিশোধ করেছে ছেলে পক্ষ।’

এর আগে রোববার (২২ জানুয়ারি) সকাল থেকে সোমবার রাত পর্যন্ত উপজেলার কামালের পাড়া ইউনিয়নের শিমুলবাড়িয়া গ্রামে বিয়ের দাবিতে অনশন অব্যাহত রাখেন তরুণী। শিমুলবাড়িয়া গ্রামের আব্দুল হাদি মিয়ার কলেজপড়ুয়া ছেলে মহিন মিয়ার সঙ্গে ঘুড়িদহ ইউনিয়নের ওই তরুণীর পরিচয় হয়। কয়েক মাস আগে এই পরিচয়ের সুবাদে উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মধ্য মহিন মিয়া ওই তরুণীকে বিয়ে করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

সম্প্রতি তরুণী তাকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে বাড়িতে আসতে বলা হয়। একপর্যায়ের ছেলের ডাকে সাড়া দিয়ে রোববার সকালে মহিনের বাড়িতে আসেন তরুণী। এসময় বিয়ের দাবি করলে সটকে পড়েন মহিন মিয়া ও পরিবারের লোকজন। তবুও বাড়ির অবস্থান ছাড়েননি তরুণী। কনকনে শীতকে উপেক্ষা করে ভেতর আঙিনায় বিয়ের দাবি নিয়ে ৩৬ ঘণ্টা ধরে অনশন করেন। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে শুরু হয়েছে নানা রশি টানাটানি। একপর্যায়ে উভয় পরিবারের সম্মতিতে সোমবার রাতে বিয়ে পড়ানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *