নন্দীগ্রামে ৫০ জন বেকার পেলেন নতুন জীবন

বগুড়ার নন্দীগ্রামে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন ৫০ জন সহকারী শিক্ষক যোগদান করেছেন। নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকরা জাতীয় বেতন স্কেলের ১৩ তম গ্রেড অনুসারে বেতন পাবেন। গত রবিবার (২২ জানুয়ারি) জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে গিয়ে তাঁরা যোগদান করে। এরপর মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) ওই প্রার্থীরা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের নিজ নিজ বিদ্যালয়ে গিয়ে যোগদান করেন।

বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকে ওই প্রার্থীদের বেকার জীবনের অবসান ঘটে। নিজের স্বপ্ন পূরনের পাশাপাশি পরিবারের লোকজনের কাছে আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক হলেন তাঁরা। যোগদানের তারিখ থেকে দুই বছর পর্যন্ত প্রার্থীদের শিক্ষানবিশকাল হিসেবে গণ্য হবে। শিক্ষানবিশকালে যেকোনো ধরনের অসদাচরণের জন্য কোনো কারণ দর্শানো ছাড়াই চাকরি থেকে অপসারণ করতে পারবে কর্তৃপক্ষ।

সারাদেশে ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর অনলাইনে আবেদন শুরু হয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের। চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয় গত ১৪ ডিসেম্বর।

নতুন যোগদানকৃত হাটুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জান্নাত খুশি বলেন, আমি খুব আনন্দিত হয়েছি। পরিবারের জন্য কিছু করতে পারব। নিজের বেকারত্বও দুর হয়েছে।

বেলঘড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন যোগদানকৃত সহকারী শিক্ষক সুজন আলী জানান, পড়াশোনা শেষ করে বসেছিলাম। চাকুরীটা পেয়ে জীবন নতুন ভাবে সাজাতে পারব।

জানতে চাইলে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল কায়ুইম বলেন, নতুন যোগদানকৃত সকল সহকারী শিক্ষকদের জন্য শুভ কামনা। মঙ্গলবারে সকল শিক্ষকরা নিজ নিজ বিদ্যালয়ে যোগদান করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *