বাবাকে শেষবারের মতো দেখার আকুতি দুই শিশু সন্তানের!

সৌদি আরবে ৩ তলা ভবনের ছাদ থেকে পড়ে মৃ’ত্যুবরণ করেছেন কক্সবাজারে রামুর রাশেদ মামুন (২৯)। তিনি কক্সবাজারের রামু উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের পূর্ব মেরংলোয়া গ্রামের আশরাফজামানের ছেলে। মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় সৌদি আরবের মক্কা নগরীতে এ দু’র্ঘটনা ঘটে।

এদিকে আজ বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে মামুনের মরদেহ দেশে ফেরত আনতে নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত আবেদন পাঠানো হয়েছে। এদিকে বাবাকে শেষবারের মতো দেখার আকুতি জানিয়ে সামাজিক মাধ্যমে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন মৃত মামুনের দুই শিশু ওয়ারিশা আওয়াদ ইউহি (৯) ও আশফাক জামান ইলহাম (৪)।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মামুন মঙ্গলবার সৌদি আরবে নির্মাণাধীন ৩ তলা ভবনের কাজ শেষ করে মালিককে বুঝিয়ে দিচ্ছিলেন। ছাদ পরিমাপকালে অসাবধানতাবশত পা পিছলে ৩ তলার ছাদ থেকে নিচে পড়ে যান। এতে মাথা ও শরীরে গুরুতর জখম। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তৃব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মামুনের নিকটাত্মীয় গোলাম মোস্তফা বাবুল জানিয়েছেন, মরদেহ দেশে আনার বিষয়ে দুই শিশু সন্তানের বিষয়টি বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। উপজেলার ফঁতেখারকুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম ভুট্টোর জানান, সৌদি প্রবাসী মামুনের মৃ’ত্যুর খবর শুনেছি। আজ সকালেও তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তার মরদেহ দেশে ফেরত আনার জন্য নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে একটি লিখিত আবেদনও করেছি।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মামুন দীর্ঘ ৮/৯ বছর ধরে জীবিকার তাগিদে সৌদি আরবে ছিলেন। মৃ’ত্যুকালে তিনি এক ছেলে এক মেয়ে, মা-বাবা, ভাই-বোন রেখে গেছেন। তার মৃ’ত্যুতে এলাকায় শোকাবহ পরিবেশ বিরাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *