ব্যাপক কমছে ডলারের দাম, ৮ মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম

আন্তর্জাতিক মুদ্রাবাজারে অন্যান্য প্রধান মুদ্রার বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের ডলারের দাম ব্যাপক কমেছে। গত ৮ মাসের মধ্যে যা সর্বনিম্ন। দেশটির শ্লথ অর্থনীতি মন্দার আশঙ্কা জাগিয়েছে৷ এতে মার্কিন মুদ্রার মূল্য হ্রাস পেয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে সিএনবিসির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে। এতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) ডলার সূচক কমে দাঁড়িয়েছে ১০১ দশমিক ৫৩ পয়েন্টে। গত এপ্রিলের শেষ দিকের পর যা সবচেয়ে কম।

এদিন অর্থনৈতিক উপাত্ত প্রকাশ করবে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। এর উপর নির্ভর করে সুদের হার বাড়াবে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভ (ফেড)। আগামী ৩১ জানুয়ারি থেকে ১ ফেব্রুয়ারি বৈঠক করবেন ফেডের নীতি-নির্ধারকরা। সেখানেই এই ঘোষণা আসবে। আপাতত সেদিকে নজর দিচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা।

ডলারের বিপরীতে ব্রিটিশ পাউন্ড স্টার্লিংয়ের দাম বেড়েছে শূন্য দশমিক ১২ শতাংশ। প্রতি স্টার্লিং বিক্রি হয়েছে ১ দশমিক ২৪১৫ ডলারে। প্রধান আন্তর্জাতিক মুদ্রার বিপরীতে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) মুদ্রা ইউরোর মূল্র বৃদ্ধি পেয়েছে শূন্য দশমিক ০৫ শতাংশ। প্রতি ইউরো বিকিয়েছে ১ দশমিক ০৯২০ ডলারে। গত ৯ মাসের মধ্যে যা সর্বোচ্চ।

জাপানি ইয়েনের মান ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ। এক ডলারের দর স্থির হয়েছে ১২৯ দশমিক ২১ ইয়েনে।

অর্থনীতিবিদ ওয়েলস ফার্গো বলেন, এবার ফেড সুদের হার বেশি বাড়াবে না বলে আভাস পাওয়া যাচ্ছে। ইউএস অর্থনীতি ধীর রয়েছে। ফলে আমরা মনে করছি, অন্যান্য মুদ্রার বিরুদ্ধে শক্তি হারাচ্ছে ডলার। সব বিদেশি কারেন্সির বিরুদ্ধে অবমূল্যায়নের পথে আছে এটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *