শ্রীলেখার ‘ভা’র্জিন’ কাণ্ডে সরগরম নেটদুনিয়া

টলিউডের আলোচিত অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। ‘ডোন্ট কেয়ার’— স্বভাবের কারণে বরাবরই আলোচনায় থাকেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় দারুণ সরব শ্রীলেখা। সমসাময়িক নানা ইস্যু নিয়ে এ মাধ্যমে কথা বলে থাকেন তিনি। বিতর্ক তার নিত্য সঙ্গী। তবে পঞ্চাশ ছুঁইছুঁই এই অভিনেত্রীর ‘নন-সেন্স’ কথাবার্তা মোটে পছন্দ নয়। তাই অনুরাগীদের ভুল ধরতেও ওস্তাদ। বেফাঁস মন্তব্যের যোগ্য জবাব দিতেও তৈরি থাকেন।

সম্প্রতি শ্রীলেখার একটি পোস্টের কমেন্ট বক্সে একজন নেটিজেন মন্তব্য করেন— ‘ভার্জিন লাগছে তোমাকে।’ সেই সঙ্গে দুটি আগুনের ইমোজি পোস্ট করেছেন ওই অনুরাগী। আর এতেই শ্রীলেখার ছন্দপতন ঘটেছে। মূল বিষয় হলো, ওই ব্যক্তি ইংরেজি হরফে লিখেছেন, ‘Vergin lagce tmke।’

তারপর এই কমেন্টের স্ক্রিনশট প্রকাশ্যে নিজের ফেসবুকে পোস্ট করে শ্রীলেখা লেখেন, ‘আমার একটি পোস্টের কমেন্ট। দাদা/ভাই, ভার্জিন কী করে কাউকে দেখতে লাগে, যদি একটু বুঝিয়ে দেন। আমার এ বিষয়ে জিকে (জেনারেল নলেজ) খুবই কম আর আপনাদের দেখছি এবার থেকে আমায় অনলাইন স্পেলিং (বানান) ক্লাস নিতেই হবে, উপায় নেই, জনগণের সেবা।’ তারপর থেকে শ্রীলেখার এই ‘ভার্জিন’ কাণ্ড নিয়ে সরগরম নেটদুনিয়া।

শ্রীলেখার এই পোস্টে একজন লিখেছেন, ‘একটা রেন অ্যান্ড মার্টিনেই সবাই শায়েস্তা।’ অভিনেত্রীর কাছের বন্ধু ত্রম্বক রায় চৌধুরী লেখেন, ‘উপযুক্ত জবাব।’

আপাতত অভিনয়ের পাশাপাশি পরিচালনাতেও মন দিয়েছেন শ্রীলেখা। সম্প্রতি তার প্রযোজিত-পরিচালিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘এবং ছাদ’ প্রদর্শিত হয়েছে নন্দনে। ভূয়সী প্রশংসাও কুড়িয়েছেন শ্রীলেখা। তার আগে বিটার হাফ শিরোনামে একটি চলচ্চিত্র তৈরি করেন শ্রীলেখা। তৈরি করছেন অ্যান্থোলজি। ‘এবং ছাদ’-এর পর তৈরি করবেন এরপর বারান্দা, তারপর বেডরুম, অতঃপর বাথরুম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *