এক নারীকে স্ত্রী দাবি করে ‘টানাটানি’ দুই স্বামীর

সিলেটে এক নারীকে নিজেদের স্ত্রী দাবি করেছেন দুই পুরুষ। বুধবার বিকেলে নগরীর লামাবাজার এলাকায় ওই নারীকে নিয়ে টানাটানি, হাতা’হাতিতে জড়িয়ে পড়েন তারা দুইজন। এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাধারণ মানুষ এগিয়ে এসে তাদের তিনজনকে সেখান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যান সিলেট সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর রেবেকা বেগম লাকীর বাসায়। এরপর পুলিশে হাজির হয়।

জানা যায়, কুমিল্লার দেবিদ্বারের আইরিন সুলতানাকে ১৯ বছর আগে বিয়ে করেন চাঁদপুরের শাহরাস্তির বাদিয়া গ্রামের মো. খোকন মিয়া। বিয়ের পর তাদের সংসারে চার সন্তানের জন্ম হয়। পরে তিনি স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে সিলেটে আসেন। ২০১৯ সালে খোকন মালদ্বীপ চলে যান। একপর্যায়ে কুমিল্লার দাউদকান্দির কাউয়াদি গ্রামের কবির হোসেনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে সুলতানার। ১৫ মাস আগে চার সন্তান ও স্বামী খোকনের সংসার ছেড়ে সুলতানা কবিরের বাড়িতে চলে যান। কবিরের সঙ্গে সিলেটের আদালতে বিয়ে করার সময় সুলতানা আগের বিয়ে বিচ্ছেদ হয়েছে জানান।

চার সন্তান ফেলে স্ত্রী চলে যাওয়ার পর তাকে খুঁজতে থাকেন খোকন মিয়া। আজ বুধবার বিকেলে সিলেটের লামাবাজার আয়েশা মেডিকেয়ার জেনারেল হাসপাতালের সামনের রাস্তায় সুলতানাকে পেয়ে যান খোকন মিয়া। এসময় সুলতানার বর্তমান স্বামী কবিরও সঙ্গে ছিলেন। কবির হোসেন আয়েশা মেডিকেয়ার জেনারেল হাসপাতাল রেস্টুরেন্টের কর্মী। আর সুলতানা ওই হাসপাতালে আয়া হিসেবে কাজ করেন।

এ অবস্থায় সুলতানা ও কবিরকে শাহজালাল উপশহরের তের রতনে নিয়ে যান। বিষয়টি খোকন কাউন্সিলর রেবেকা আক্তার লাকীকে জানান। খোকন ও কবির দুজনেই স্ত্রী দাবি করায় এবং কাগজপত্র থাকায় কাউন্সিলর লাকি তিনজনকেই সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) শাহপরাণ থানায় পাঠান।

শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আনিসুর রহমান বলেন, ‘একজনের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে অনেক আগে। ওই ঘরে সন্তানও রয়েছে। আরেকজনের সঙ্গে বিয়ে হয়েছে তিন মাস আগে। বিষয়টি আমরা ভালো করে দেখছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *