আমি ভালো খেললে বউ খুশি হয়, বাচ্চা লাফায়: নাসির

চলতি বিপিএলে যেন নিজেকে নতুন করে খুঁজে পেয়েছেন অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। এবারের বিপিএলে এখন অবধি সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও নাসির। ৫ ম্যাচ খেলে ৭১.৬৬ গড় ও ১২৭.২১ স্ট্রাইক রেটে তার ব্যাট থেকে এসেছে ২১৫ রান। কঠিন সময় পাড়ি দিয়ে আসা নাসির বলছেন, এখন তিনি উপভোগ করছেন ব্যাটিং। বিপিএলে ঢাকা ডমিনেটরসের নেতৃত্বের ভারও আছে তার ওপর। নাসির বলছেন, তিনি ভালো খেললে এখন খুশি হন অনেকে।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমার লাইফস্টাইল আগে যেমন ছিল, এখনও তেমনই আছে। একটা কথাই বারবার আসছে, সেটা হচ্ছে সুযোগ। আগে সেটা পাইনি, এখন পাচ্ছি। এ কারণে হয়তো পারফর্ম একটু ভালো হচ্ছে। আরেকটা জিনিস হচ্ছে, আমি ভালো খেললে কেউ না কেউ খুশি হয়। চেষ্টা করি এজন্য ভালো খেলতে।’

কারা খুশি হন জানতে চাইলে নাসির বলেন, ‘বাবা-মা, ভাই-বোন, বউ খুশি হয়। আর বাচ্চা খেলা দেখে। ও লাফায়।’ তাদের জন্যই কি এখন ভালো খেলার চেষ্টা করেন? নাসির বলছিলেন, ‘চেষ্টা করি তো ভালো খেলার। সবচেয়ে বড় কথা ভালো খেললে পরিবার খুশি হবে এটাই স্বাভাবিক। সবচেয়ে বড় কথা যখন পরিবারের চেহারার দিকে তাকাই, ওরা হাসিখুশি থাকে। ওটা আলাদা একটা অনুভূতি, আমারও ভালো লাগে।’

এ সময় নিজের ব্যাটিং নিয়ে নাসির বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে ব্যটিং উপভোগ করছি। আর বিপিএলের কথা যদি বলেন এবারই প্রথম আমি নিয়মিত একটা পজিশনে ব্যাটিং করতেছি। এর আগে আমি হয়তো ৬-৭ এ ব্যাট করতাম, ওভার থাকতো ৩-৪ টা। এ কারণে হয়তো বা আমি পারফর্ম করতে পারিনি।’

তিনি আরও বলেন, ‘তবে এবার আমি যেখানে ব্যাটিং করতেছি, আপনি দেখেন আমাদের টপ অর্ডার দ্রুত আউট হয়ে যাচ্ছে। আমি লম্বা সময় ব্যাটিং করার সুযোগ পাচ্ছি। আমি যে ধরনের ব্যাটার গিয়েই মারাটা আমার জন্য কঠিন। উইকেটে সময় নিতে হয়। তো আমার মনে হয় আমি সেই সময়টা উইকেটে পাচ্ছি আর আল্লাহর রহমতে শেষটা ভালো হচ্ছে।’

জানতে চাওয়া হয়, দুঃসময় কি কাটিয়ে উঠিয়েছেন? এমন প্রশ্নে নাসিরের উত্তর, ‘দুঃসময় কখন আসে বলা যায় না। তারপরও আমি বলবো সুন্দর একটা ফ্লোতে আছি। চেষ্টা করতেছি পারফর্ম করার জন্য। বাকিটা আল্লাহর উপর আছে। আমার কাজ যেটা পারফর্ম করা আমি সেটা চেষ্টা করতেছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *