একই থালায় ২৪ বছর খাবার খেয়েছেন মা! মৃ’ত্যুর পর কারণ জানলেন ছেলে !

প্রতিটি মা’ই পরিবার জন্য সর্বোচ্চ টা করে থাকেন। তেমনি মায়েদের কিছু অদ্ভুত অভ্যাস থাকে যার তল খুঁজে পাওয়া কঠিন। অনেক সময় সে সব অভ্যাস চোখের সামনে দেখলেও প্রশ্ন করার কথা মনে হয় না সন্তানেদের। কখনও বা প্রশ্ন করেও পাওয়া যায় না জবাব।

সম্প্রতি সাধারণ একটি থালা থেকে তেমনই এক গল্পের সন্ধান মিলেছে ভারতে। এখানেরও মূল চরিত্র সেই মা। এই মা গত ২৪ বছর ধরে একই থালায় খাবার খেয়ে গেছেন। আপাতদৃষ্টিতে এ থালাটি মোটেও অসাধারণ কোনো থালা ছিল না। তবে যেহেতু তিনি মা, সাধারণ এই থালাটিকেই তিনি বানিয়ে ফেললেন অসাধারণ এক থালায়।

এদিকে ভারতীয় একাধিক সংবাদমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে জানায়, ২৪ বছর ধরে ব্যবহারের কারণে থালাটির কয়েক জায়গায় টোল পড়েছে, মলিনও হয়েছে একেবারে। কিন্তু তারপরও মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এই থালা তিনি ছাড়েননি, ব্যবহার করেই গেছেন। তবে ২৪ বছর ধরে একই থালা তিনি কেন ব্যবহার করে গেলেন। মৃত্যুর আগে সে প্রশ্ন করা হয়নি মাকে, তবে ছেলে সে কারণ জানলেন মায়ের মৃত্যুর পর।

সম্প্রতি টুইটারে সে গল্পই তুলে ধরেছেন তিনি। থালাটির একটি ছবি দিয়ে তিনি লিখেছেন- এটা আমার আম্মার থালা। এই থালাতে গত দু’দশক ধরে খেতে দেখেছি মাকে। মা একমাত্র আমাকে আর আমার ভাগ্নিকেই এই থালায় খাবার খাওয়ার অনুমতি দিয়েছিল। আজ মায়ের মৃত্যুর পর জানলাম।

আমার বোন আমাকে বলল, এই থালাটি আমি পুরস্কার পেয়েছিলাম। টুইটে তিনি আরও লিখেছেন- ১৯৯৯ সালে তিনি যখন সপ্তম শ্রেণিতে পড়তেন, তখনই থালাটি পুরস্কার পেয়েছিলেন। তারপর থেকে গত ২৪ বছর ধরে আমার পুরস্কার পাওয়া এই থালায় তিনি খাবার খেয়েছেন। কী অদ্ভূত সুন্দর! অথচ আমাকে কখনও বলেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *